আফিফকে এখনই কোনো নাম দিয়ে দেবেন না’–তামিম ইকবাল

একসময় মাহমুদউল্লাহ ছিলেন বাংলাদেশের ক্রাইসিস ম্যান, এখন আফিফ…’, সংবাদ সম্মেলনে একটি প্রশ্ন ছুটে গেল এরকম। সেখানেই আপত্তি করলেন তামিম ইকবাল। এত দ্রুত আফিফের ওপর কোনো নামের ভার কিংবা তকমা চাপিয়ে না দিতে অনুরোধ করলেন তিনি। বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়কের চাওয়া, আফিফ ছুটতে থাকুক তার মতো করেই।

বিজ্ঞাপন প্রকাশের জন্যে যোগাযোগ করুন

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশের হোয়াইটওয়াশ এড়ানো জয়টি এসেছে আফিফের হাত ধরে। শেষ ওয়ানডেতে বুধবার দলের নড়বড়ে সময়ে ব্যাট করতে নেমে তরুণ বাঁহাতি খেলেন ৮১ বলে ৮৫ রানের দুর্দান্ত অপরাজিত ইনিংস। মূলত তার সৌজন্যেই আড়াইশ ছাড়াতে পারে দল।

এই ম্যাচেই শুধু নয়, এ বছর বাংলাদেশের আরও দুটি ওয়ানডে সিরিজে আফিফ দলের বিপর্যয়ে খেলেন দারুণ ইনিংস। ফেব্রুয়ারিতে চট্টগ্রামে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ২১৬ রান তাড়ায় ৪৫ রানে ৬ উইকে হারিয়ে ধুঁকছিল দল। সেখান থেকে আফিফ ও মেহেদী হাসান মিরাজ অসাধারণ জুটিতে দলকে জিতিয়ে দেন।

আফিফ সেদিন অপরাজিত থাকেন ৯৩ রানে। পরের মাসেই দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে জোহানেসবার্গে ৩৪ রানে ৫ উইকেট পড়ার পর আফিফ খেলেন ৭২ রানের ইনিংস।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ শেষে সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশের এক সংবাদকর্মী আফিফকে ‘ক্রাইসিস ম্যান’ আখ্যা দিয়ে জানতে চাইলেন অধিনায়কের অভিমত। তামিম আপত্তি জানালেন নাম দেওয়া নিয়ে, প্রশংসা করলেন আফিফের বিশেষ এক সামর্থ্য নিয়ে।

এখনই ওকে কোনো নাম দিয়ে দেবেন না, একটু দ্রুতই হয়ে যায় ওর জন্য। ওর মধ্যে আমি যা দেখি, ওর অনন্য একটা গুণ আছে, যা খুব বেশি লোকের নেই। যদি আজকের খেলা দেখেন ও দ্বিতীয় ম্যাচ, সে উইকেটে যখন গেছে, দল তখন চাপে। কিন্তু সে খেলার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিয়েছে।

“এই ধরনের ক্রিকেটার অনেক সময় এই কাজ করতে গিয়ে আউটও হবে। তখন আমরা, আপনারা বলবেন যে কী করল। কিন্তু আমি চাই না সে এই গুণটা হারাক। সে যেভাবে ব্যাট করতে চায়, সেভাবেই করুক। সে দাপুটে ব্যাটিং করতে চায়, দারুণ ব্যাপার এটা।”
১৯ ওয়ানডে খেলে আফিফের রেকর্ডের ছবিটা এখন চমৎকার। ব্যাটিং গড় ৪৩.৭২, স্ট্রাইক রেট ৯২.৩২। বিপর্যয়ের মধ্যে খেলা ইনিংসগুলো ফুটিয়ে তুলছে তার টেম্পারমেন্টকে। ২২ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারের ভবিষ্যৎ দারুণ উজ্জ্বল বলেই মনে করেন তামিম। তবে আবারও অনুরোধ করলেন তকমা না দেওয়া নিয়ে।

“এখনও কেবল ওর শুরুর সময়। আমি নিশ্চিত, দুর্দান্ত এক ক্যারিয়ার হবে ওর। তবে নাম দিয়ে ফেলাটা দ্রুতই হয়ে যায়।”

Leave a Reply

Your email address will not be published.