কিশোরগঞ্জের বেসরকারি হাসপাতালে নারীর লাশ উদ্ধার, রিসিপশনিস্ট কে নার্স বলে খবর প্রচার

কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলায় একটি প্রাইভেট হাসপাতালের কক্ষ থেকে এক নার্সের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

 

এ ঘটনায় দেশের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমেও প্রচারণা হয় সে নার্স কিন্তু খোজ নিয়ে দেখা গেছে উক্ত নারী একজন রিসিপশনিস্ট,তিনি নার্স নন বলে দাবি করেছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এদিকে রিমাকে যাচাই-বাছাই ছাড়াই নার্স বলে সংবাদ প্রচার করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন সচেতন নার্সরা।

সোমবার (১১ জুলাই) সকালে হাসপাতালের একটি কক্ষে মরদেহ পাওয়া যায়।

নিহতের নাম রিমা প্রামাণিক (১৯)। সে নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের পিরিজকান্দি গ্রামের সেন্টু প্রামাণিকের মেয়ে। তিনি ভৈরবের ইউনাইটেড হাসপাতাল অ্যান্ড অর্থোপেডিক সেন্টারে নার্স হিসেবে দুই বছর ধরে কর্মরত ছিলেন।

নিহতের বড় বোন তনিমা প্রামাণিক বলেন, রিমা গত বুধবার হাসপাতাল থেকে ছুটি নিয়ে বাড়িতে আসেন। পরে গত শনিবার বাড়ি থেকে ফের হাসপাতালে যায়। আজ সোমবার সকালে হাসপাতাল থেকে ফোন করে জানানো হয় আমার বোন আত্মহত্যা করেছে। আমরা এসে দেখি তার গলায় দাগ। কিন্তু বিছানায় শোয়ানো। রিমার মৃত্যু আমাদের কাছে রহস্যজনক মনে হচ্ছে।

ভৈরব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জনাব মো. গোলাম মোস্তফা জানান, এ সংবাদ পেয়ে ভৈরব ইউনাইটেড প্রাইভেট হাসপাতালের কক্ষ থেকে ওই নার্সের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তার গলায় দাগ রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন। তবে কেন, কী কারণে আত্মহত্যা করেছেন, তা জানা যায়নি।

তিনি আরও জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন হাতে পেলে বিস্তারিত জানা যাবে।

এদিকে হাসপাতালে যোগাযোগ করা হলে তারা জানান রিমা কোনো নার্স না সে রিসিপশন এ কাজ করতো।পারিবারিক দ্বন্দের জেরে হাসপাতালে এসে গলায় ফাসি দিয়েছে বলে দাবি করেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.