লুঙ্গী পরে অনলাইন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ, বহিষ্কার ৩ পরীক্ষার্থী

বাংলাদেশে থেকেও বাংলা পোষাক পরে মিলছে লাঞ্ছনা। অন্যায় ভাবে চালাচ্ছে ক্ষমতার অপপ্রয়োগ। এই ঘটনা ঘটেছে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, দিনাজপুরে।

২৭ সেপ্টেম্বর অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ফুড প্রোসেস এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০ তম ব্যাচের ফাইনাল সেমিস্টার এক্সামে।
এক জন ছাত্র ( নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) জনালার অপজিটে মুখ করে বসায় আলোর কারনে তার মুখ স্পস্ট না দেখতে না পাওয়ায় জানালার পর্দা লাগাতে বলেন। পর্দা লাগাতে গেলে শিক্ষক তাকে লুঙ্গী পরিহিত অবস্থায় দেখে ফেলেন। এবং জুম মিটিং থেকে বের করে দেন। পরে জানানো হয় ড্রেস কোড না মানায় তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। আরো দু জন পরীক্ষার্থীকে একই কারণে বিহিষ্কারের কথা নিশ্চিত করেছে ওই ছাত্র।
ড্রেস কোডের কথা বললেও ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে নেই কোনো নির্দিষ্ট ড্রেস কোড। যে যার মতো পোষাক পরে যেতে শিক্ষার্থীরা। তাহলে লুঙ্গী পরায় কি দোষ?
নির্ধারিত ড্রেস কোড না থাকলে বাংলাদেশে থেকে লুঙ্গী পরে সশরীরে ক্লাশ করা বা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার অধিকার রাখে শিক্ষার্থীরা।
যা ঘটেছে তা সম্পূর্ণ ক্ষমতার অপব্যাবহার।
বৃটিশরা চলে গেছে। তবে আমরা তাদের কালচার আর মন মানসিকতা অন্তরে পোষন করছি ।
সূত্রঃBVTV
আশা আক্তার,
স্টাফ রিপোর্টার।

Leave a Reply

Your email address will not be published.