চট্টগ্রাম মেডিকেলে নার্সদের উপরে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের হামলা,নার্সদের প্রতিবাদে মুখর মূল ফটক

Spread the love

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২৬ নং ওয়ার্ডে কর্তব্যরত নার্সদের উপরে হামলা করেছেন একজন ইন্টার্ন চিকিৎসক। তুচ্ছ্য বিষয়ে কর্তব্যরত নার্সিং কর্মকর্তার গায়ে হাত তোলাকে কেন্দ্র করে বিশাল বিক্ষোভ শুরু হয়। প্রত্যক্ষদর্শীর বরাতে জানা যায়, অভিযুক্ত ইন্টার্ন চিকিৎসক একটা রোগীকে ভর্তি করাতে নিয়ে আসেন। তখন ডাটা এন্ট্রির সময় রোগীর অভিভাবকের মোবাইল নাম্বার জানতে চাওয়া হয়। স্পষ্ট বুঝতে না পারায় কর্তব্যরত নার্স দ্বিতীয়বার মোবাইল নাম্বার জানতে চাইলে ঐ পুরুষ ইন্টার্ন চিকিৎসক রাগান্বিতহয়ে নার্সের উপর হামলা করেন এবং প্রহার করে মেঝেতে ফেলে দেন। জানা যায়, হামলার শিকার হওয়া ঐ মহিলা নার্স ৩ মাসে গর্ভবতী। তখন অন্যান্য নার্সরা এগিয়ে আসলে তাদেরকেও প্রহার করেন ঐ মেডিকেল শিক্ষার্থী। অভিযুক্ত ইন্টার্ন চিকিৎসক ছাত্রলীগের নাম ব্যবহার করে আন্দোলনকারী নার্সদের ভয়ভীতি প্রদর্শন ও হুমকি দিচ্ছেন বলেও জানা যায়।

পরবর্তীতে খবরটি হাসপাতালে ছড়িয়ে পড়লে বিভিন্ন ওযার্ডে দায়িত্বরত নার্সরা জড়ো হন এবং ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাতে থাকেন। একপর্যায়ে জড়ো হওয়া নার্সদের গায়ে পুনায় হাত তুললে সমস্ত নার্স সমাজ বিক্ষোভে ফেঁটে পড়েন। সবাই হাসপাতালের মূল ফটকে এসে আন্দোলনে জড়ো হন এবং বিচার চেয়ে মিছিল করেন।

এই প্রতিবেদন লেখা অবদি আন্দোলন চলছে। পরিস্থিতি এখনো নিয়ন্ত্রণে আসে নি। উল্লেখ্য যে, ঐ অর্থো সার্জারি ওয়ার্ডে সীতাকন্ড ট্রাজেডিতে আগুনে দগ্ধ অনেক রোগী রয়েছেন। উক্ত ঘটনার কারনে হাসপাতালের স্বাভাবিক চিকিৎসা সেবা ব্যাহত হচ্ছে এবং রোগী ও রোগীর স্বজনদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

একদল নার্স অভিযোগ করে বলেন, যথাযথ বিচার না হওয়াতে ডাক্তার কর্তৃক নার্স প্রহারের ঘটনা বেড়ে চলছে। এর আগেও এমন ঘটনা ঘটেছিল কিন্তু উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা হয়নি।
আন্দোলনকৃত নার্সরা উক্ত ইন্টার্ন চিকিৎসকের ছাত্রত্ব বাতিল সহ উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.