সরকারি হাসপাতালে চাকুরী হওয়ায় নার্স রেণুর হাত কেটে দিলেন স্বামী

Spread the love

স্ত্রী সরকারি চাকরি পাওয়ার পর তাঁর ডান হাত কব্জি থেকে কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। শনিবার (৪ জুন) রাতে নৃশংস এই ঘটনা ঘটেছে ভারতের পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রামে।

ভর্তির জন্যে যোগাযোগ করুন ০১৮৬৭৯০২৯৬২

জানা যায়, কেতুগ্রামের কোজলসার বাসিন্দা শেখ মোহাম্মদ শনিবার রাতে তাঁর স্ত্রী রেণু খাতুনের ডান হাত কব্জি থেকে কেটে নেন। সম্প্রতি নার্সের চাকরি পেয়েছিলেন রেণু। অভিযোগ, চাকরি পাওয়ার পর রেণু তাঁকে ছেড়ে চলে যেতে পারেন, এই আশঙ্কায় শেখ মোহাম্মদ তার স্ত্রীর হাত কেটে নিয়েছেন। এ ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

সাংগঠনিক সম্পাদক পদপ্রার্থী শামীম আহমেদ

বিষয়টি নিয়ে কেতুগ্রাম থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন রেণুর পরিবার। জানা গিয়েছে, রেণু ছোটবেলা থেকেই মেধাবী। তাঁর স্বপ্ন ছিল নার্স হওয়ার। সম্প্রতি তিনি নার্সের চাকরিও পান। অভিযোগ, এর পরেই শেখ মোহাম্মদের কয়েক জন বন্ধু তাঁকে বোঝায়, চাকরি পেলে রেণুর সঙ্গে তাঁর বিচ্ছেদ হতে পারে। অভিযোগ, এর পরই বন্ধুদের সঙ্গে মোহাম্মদ পরিকল্পনা করেন রেণুর হাত কেটে নেওয়ার। শনিবার রাতে রেণু যখন ঘুমাচ্ছিলেন, তখন মুখে বালিশ চাপা দিয়ে তাঁর ডান হাত কব্জি থেকে কেটে ফেলা হয়। এর পর রেণুকে কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু সে সময় মোহাম্মদ রেণুর ডান হাতের কাটা অংশটি লুকিয়ে রাখেন বলেও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়।

ঘটনার পর শেখ মোহাম্মদ এবং তার পরিবারের সকলে গা ঢাকা দিয়েছেন। বাড়িতে ঝুলছে তালা। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। বর্তমানে রেণু দুর্গাপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি। সূত্র: আনন্দবাজার।

Leave a Reply

Your email address will not be published.