ইন্টার্নশিপ এ স্টাইপেন্ড পাচ্ছে-স্টেট কলেজ অব হেলথ সায়েন্সেস এর নার্সিং শিক্ষার্থীরা

Spread the love

বেসরকারি নার্সিং কলেজ ও ইন্সটিটিউট গুলোতে ইন্টার্শিপ ও হাসপাতালে প্রাক্টিসে সাধারণত কোনো প্রকার সম্মানি দেওয়া হয় না শিক্ষার্থীদের। বরং অনেক সময় সরকারি হাসপাতালে ইন্টার্নশিপ করতে গেলে উল্টো শিক্ষার্থীদের কাছ নেওয়া হয় অর্থ।

স্টেট কলেজ অব হেলথ সায়েন্সেস এর শিক্ষার্থীদের জন্য সু-খবর দেশের স্বনামধন্য বেসরকারি হাসপাতালে প্র‍্যাক্টিস এর পাশাপাশি তারা পাচ্ছেন মাসিক নির্দিষ্ট একটি ভাতা, যা তাদের কে কাজের আগ্রহ আরো বাড়িয়ে তুলছে বলে ধারনা।

এই প্রসঙ্গে কলেজের প্রাক্তন ছাত্র ও শিক্ষক জাহিদ হাসান রাসেল স্যারের একটি বক্তব্য তুলে ধরা হলো।

অভিনন্দন আমার প্রিয় স্টেট কলেজ অব হেলথ সায়েন্সেস ছাত্র/ছাত্রীদের ।

এখন থেকে তোমাদের (দ্বিতীয় বর্ষ- চতুর্থ বর্ষ) ক্লিনিক্যাল প্র্যাক্টিস ল্যাবএইড হসপিটালে হওয়ার ফলে শিক্ষাজীবনে কর্পোরেট লেভেলের হসপিটাল সম্পর্কিত ফ্লেভার নিতে পারবা, সেবা গ্রহীতার (ক্লাইন্ট, রোগী) প্রত্যাশা, তাদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা, আধুনিক চিকিৎসার বিজ্ঞানের নতুন নতুন যন্ত্রপাতির সাথে পরিচয়, যন্ত্রপাতির ব্যবহার সবকিছুই হাতে-কলমে শিখতে পারবা এবং সাপ্তাহব্যাপী NABH ট্রের্নিং, হসপিটাল প্রটোকল সমপর্কিত বিশদ জ্ঞান অর্জন করতে পারবা। আশা করছি তোমরা মনযোগ সহকারে শিখবা /কাজ করবা।

ক্লিনিক্যাল প্র্যাক্টিসের জন্য যে সম্মানী/ স্টাইপেন্ড পাচ্ছো তা ছাত্রবস্থায় তোমাকে প্রফেশনাল / রেসপনসিভল হতে অনেক সাহায্য করবে। এজন্য কলেজ, ডিপার্টমেন্ট, হসপিটাল প্রশংসার দাবিদার। তাদের এ মহতী উদ্যোগকে একজন অ্যালামনাই হিসেবে স্বাগত জানাই।

অলরেডি তোমাদের এক্টিভিটিসের প্রশংসা আমার কাছে এসেছে। যা আমাকে অনেক অভিভূত করেছে। এ ধারা যেন অব্যাহত থাকে সে প্রত্যাশা রইল।
শুভকামনা ও স্নেহ রইল৷

এদিকে এরকম ব্যাতিক্রম এই উদ্যোগ কে সাধুবাদ জানিয়েছেন সাধারণ শিক্ষার্থী রা

Leave a Reply

Your email address will not be published.